কালিগঞ্জে রোগাক্রান্ত মৃতপ্রায় গরু জবাই ১৬০ কেজি মাংস জব্দ, দোকান সিলগালা

শেখ মারুফ হোসেনঃ সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে গুটিবসন্তে আক্রান্ত মৃতপ্রায় গরু গোপনে জবাই করে মাংস বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে ৩ জন  মাংস বিক্রেতার বিরুদ্ধে।শনিবার (১জুন) সকাল ৭টার দিকে উপজেলার কুশলিয়া ইউনিয়নের জিরণগাছা মোড়ে এ ঘটনা ঘটে।

পরে কালিগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আজাহার আলী, স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ঐ গরুর  মাংস জব্দ করে কেরোসিন মিশিয়ে মাটিতে পুঁতে ফেলার পাশাপাশি বিতর্কিত ব্যবসা প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেন।

অভিযুক্ত ওই তিন মাংস ব্যাবসায়ী হলেন, দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের শ্রীকলা গ্রামের সহিল উদ্দীন ( সলু ) কসাইয়ের ছেলে মোজারুল ইসলাম (৩৬), কুশলিয়া ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের মরহুম সোহরাব সরদারের ছেলে মিলন (৩৪) ও একই গ্রামের মরহুম দেলবার সরদারের ছেলে মুনসুর আলী (৫৫)।

স্থানীয় ইউপি সদস্য গাজী ফারুক হোসেন জানান, দীর্ঘদিন যাবত তারা জিরণগাছা বাজারে মাংস বিক্রি করে আসছেন। শনিবার ভোর ৫টার দিকে তারা উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের ফরিদপুর গ্রামের হজরত আলীর ছেলে আমিরুল ইসলামের নিকট থেকে  প্রায় ১৫ দিন যাবত গুটিবসন্ত রোগে আক্রান্ত মৃতপ্রায় একটা গরু ৯৫০০ টাকায় কিনে ওই গোয়ালে জবাই করে। ভোরে ঐ মাংস জিরণগাছা বাজারে এনে দেশী এড়ে গরুর মাংস হিসেবে প্রচার দিয়ে বিক্রি করতে থাকেন।